বাইকের সাউন্ড নিয়ে চিন্তিত?

1299

বাইক চালানোর সময়, বাইকের ইঞ্জিন থেকে অস্বাভাবিক সাউন্ড অনুভব করছেন? টেকনিশিয়ান কে বোঝাতে পারছেন না কি ধরনের সাউন্ড ? বাইকের ইঞ্জিন সাউন্ড নিয়ে কি আপনি অসন্তুষ্ট?

বাইকের ইঞ্জিনে স্বাভাবিক ভাবেই সাউন্ড হয়। আবার কোন কোন ক্ষেত্রে বাইকের পার্টস এর জয়েন্ট ঢিলা হয়ে গেলে অস্বাভাবিক সাউন্ড হতে পারে, যেগুলো টাইট দিলেই সমাধান হয়ে যায়।

কিন্তু এমন কিছু সাউন্ড হয় যেগুলো আসলেই চিন্তার কারন। দ্রুত  এই সমস্যা গুলির সমাধান না করলে পরবর্তীতে বড় কোন সমস্যা হতে পারে।

এমন কিছু অস্বাভাবিক সাউন্ড ও তার সমাধান নিয়েই আজকে আমাদের আলোচনা। আর্টিকেল টি পড়ে কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।

 

টিক, টিক, টিক

ধরুন আপনি লং ড্রাইভে আছেন, অথবা অনেকক্ষণ ধরে বাইক চালাচ্ছে। হঠাৎ বাইকে একধরনের সাউন্ড(টিক, টিক, টিক) সুনতে পেলেন, সাউন্ড টি সব সময় হচ্ছে না, একটি নিরদিস্থ স্পীডে ওঠার পর হচ্ছে।

আপনি রাস্তার পাশে থেমে গেলেন, এবার সাথে সাথে সাউন্ড টি পালাল। আপনি বাইক টি ডাবল স্ট্যান্ড করলেন, বাইক স্টার্ট দিয়ে সমপরিমার RPM ও তুল্লেন, অই সাউন্ড(টিক, টিক, টিক) এর কোন খবর নেই। আবার যখন বাইক চালাচ্ছে অই নিরদিস্থ স্পীডে সাউন্ড টি হচ্ছে। বরই চিন্তার কারন।

ভয় নেই। উৎস ও সমাধানের পথ বলে দিচ্ছি ।

দুটি কারনে হতে পারে। প্রথমত আপনার বাইকের পিছনে চেসিস এর সাথে সংযুক্ত এমন কোন পার্টস এর জয়েন্ট ঢিলা হয়ে গেছে , যা একটি নিরদিস্থ স্পীডে বাইকের কম্পনের অনুপাতে সাউন্ড করছে। এটি বাইকের ইঞ্জিনের সমস্যা নয়, পার্টস টি টাইট করে দিলেই সমাধান হয়ে যাবে।

দ্বিতীয়ত, বাইকের ভালভ ট্রেন ও ট্যাপিট অ্যাডজাস্টমেন্ট সঠিক না হলে ইঞ্জিন থেকে আসতে পারে। আবার ইঞ্জিন অয়েলের পরিমান কমে গেলেও ইঞ্জিন থেকে এই ধরনের সাউন্ড হতে পারে।বাইকের ড্রাইভ চেন এর কারনেও এই ধরনের সাউন্ড হতে পারে।

এই ধরনের সমস্যা সমাধানের জন্য খুবই গুরুত্ব পূর্ণ সাউন্ডের উৎস স্থল খুজে বের করা। সাউন্ড কি ইঞ্জিন পার্ট থেকে আসছে নাকি চেসিস পার্ট থেকে আসছে।

চির, চির, চির

অপ্রত্যাশিত শব্দের মধ্যে এটি একটি যা মেশিন থেকে উত্পন্ন হয়, শব্দ টি অনেটা পিষন শব্দের মত। খুব ঘন ঘন ঘর্ষণের ফলে যেমন শব্দ হয় ঠিক তেমন। আপনি যখন ব্রেক টি টেনে ধরছেন ঠিক তখন বেশি হচ্ছে শব্দ টি। সাউন্ড টি খুব স্মুথ কিন্তু বিরক্তি কর।

কয়েকটি কারন থাকতে পারে এর পেছনে,

বাইকের ব্রেক ক্যালিপার টি পরিক্ষা করুন, হতে পারে এর সমন্নয় টি সঠিক হয় নি।ব্রেক প্যাড থেকে তখনিই সাউন্ড হয় যখন এটি অতিরিক্ত সুস্ক অথবা কোন কারনে এর ভিতরে তরল পদার্থ প্রবেশ করে। সহজভাবে কয়েকবার ব্রেক ব্যবহার করে এই সমস্যা টি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

এই ধরনের শব্দ চাকা থেকেও আসতে পারে। সাধারণত কয়েকদিন বাইক না চালালে চাকা থেকে এই ধরনের শব্দ হয়।

চেন থেকে উৎপন্ন শব্দ

চেন থেকে সাধারণত তিন কারনে শব্দ হয়,

প্রথমত, বাইক অনেক দিন না চালালে বাইকের চেন টি স্পকেট এর সাথে বসে যায়। লুব সুকিয়ে এমন অবস্থা হয় যে মনে হয় জং ধরেছে। যেহেতু বাইকের চেনে ময়লা থাকে এবং সুকিয়ে যাবার কারনে এর উপর একটি পাতলা স্তর পড়ে। যখন এটি ঘুরতে সুরু করে তখন শব্দ হয়।

এর থেকে মুক্তির সহজ উপায় হল চেন লুব ব্যাবহার করা।

দ্বিতীয়ত, যখন চেন এর গিট গুলিতে অতিরিক্ত ময়লা জমে এবং স্বাভাবিক ভাবে স্পকেট এর উপর বসতে না পারে। এর ফলে চেন, স্পকেটের সাথে অতিরিক্ত ঘর্ষণ হয় যার ফলে শব্দ করে। এর থেকে মুক্তির জন্য প্রতি সপ্তাহে অন্তত এক বার ও বৃষ্টির দিনে প্রতি দুই দিন অন্তর অন্তর চেন পরিস্কার করুন। কাজ টি কষ্টসাধ্য হলেও বাইকের চেন এর স্থায়িত্ত বৃদ্ধি করবে।

তৃতীয়ত, যদি আপনার বাইকের চেন টি ঢিলা হয়। এতে যেমন আপনি অস্বাভাবিক শব্দ অনুভব করবেন আবার ঝুঁকিতেও থাকবেন। যে কোন সময় চেনটি খুলে গিয়ে বড় দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে। এজন্য প্রতি ৮০০-১০০০ কি মি পর পর বাইকের চেন টি অ্যাডজাস্ট করুন।

ছি ছি, হিস হিস

এই ধরনের শব্দ কয়েকটি কারনে হতে পারে, বাইকের radiator leak অথবা exhaust system leak থাকলে এই ধরনের শব্দ হতে পারে। এর মানে হচ্ছে খুব দ্রুত সার্ভিস দরকার।

অন্যদিকে বাইকের টায়ার যদি খুব পুরনো হয় তবের এর গ্রিপ এর ক্ষমতা কমে যায়। টায়ার টি পাতলা হয়ে যাবার কারনে রাস্তার সাথে ঘর্ষণের ফলে এই ধরনের সাউন্ড হয়। সাধারণত ২০০০০ কি মি পর পর বাইকের টায়ার পরিবর্তন করতে হয়।

কিচ, কিচ

সাধারণত এই ধরনের শব্দ বাইকের ডিস্ক ব্রেক থেকে আসে। এর মুল কারন হল ডিস্ক ব্রেকে ধুলা বালু প্রবেশ করা। এতে বাইকের ডিস্ক ক্ষতি গ্রস্ত হয়। ডিস্কের থিকনেস কমে যায়। এই ধরনের শব্দ হলে ডিস্ক ব্রেক প্যাড টি খুলে পরস্কার করে পুনরায় লাগাতে হবে।

আবার ডিস্ক ব্রেক প্যাড টি ক্ষয় হয়ে গেলেও এই ধরনের শব্দ হয়।

 

প্রতিটি বাইক চলার সময় একধরনের স্বাভাবিক শব্দ হয়। যেটি বাইকের মালিকের কাছে খুবই পরিচিত। যখন রাইডার কোন  অস্বাভাবিক শব্দ সুনতে পায় , এটি যেমন বিরক্তি কর তেমনি অনেক ক্ষেত্রে ঝুঁকির কারন। বাইকটিকে বুঝতে তেস্থা করুন, অস্বাভাবিক কিছু পেলে সমাধান করুন। আর সব সময় হেলমেট পড়ে বাইক চালাবেন।
এই আর্টিকেল টি লিখে পাঠিয়েছেন BikeGuy ফ্যান – Sadman Quraishi.

আপনার কোন প্রস্ন থাকলে বা এই বিষয়ে কোন কিছু জানানোর থাকলে নীচের মন্তব্য বিভাগে লিখতে ভুলবেন না । আপনার রাইডার বন্ধুদের সাথে নিবন্ধটি শেয়ার করে নিন যাতে তারাও জানতে পারে ।

-BikeGuy Advertisement-